শিক্ষার্থীদের আন্দোলন ও অবস্থান কর্মসূচি কুষ্টিয়ায় ‘

এনামুল হক রাসেল এনামুল হক রাসেল

সম্পাদক, দ্য বিডি রিপোর্ট ২৪ ডটকম

প্রকাশিত: ৯:০৮ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০২১
শিক্ষার্থীদের আন্দোলন ও অবস্থান কর্মসূচি কুষ্টিয়ায় ‘

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি: জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের চলমান পরীক্ষা সমূহ মার্চ মাসের মধ্যে পুনরায় গ্রহণ করার দাবিতে দ্বিতীয় বারের মতো আজ শনিবার সকাল ১০ টা থেকে কুষ্টিয়া সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের সামনে আন্দোলন ও অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।

 

 

এসময় শিক্ষার্থীদের “আন্দোলন ও অবস্থান কর্মসূচি” শীর্ষক ব্যানার ও “মার্চ মাসে পরীক্ষা হলে, যাবো মোরা ঘরে চলে।ফিরবো কোন ভরসায়, ডুবে আছি হতাশায়।মোরা নিবো মোদের দায়, মার্চ মাসে পরীক্ষা চাই।আমাদের দাবী মেনে নিন, মার্চ মাসেই পরীক্ষা নিন।দাবী মোদের একটাই, মার্চ মাসে পরীক্ষা চাই।মার্চ মাসে পরীক্ষা নিলে, আমরা যাবো ঘরে চলে” শীর্ষক প্লেকার্ড হাতে নিয়ে কলেজ গেটে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের অবস্থান করতে দেখা যায়।

 

 

 

শিক্ষার্থীরা বলেন, বিসিএসসহ সকল চাকরির পরীক্ষা নেওয়া হচ্ছে, ঢাবি’র অধীনস্থ ৭ কলেজের পরীক্ষা নেওয়া হচ্ছে,ভিড় উপেক্ষা করে ফরম পূরণ করা হচ্ছে, নির্বাচনী প্রচারণা চালানো হচ্ছে,ভোটগ্রহণ চলছে, হাটবাজার, পাবলিক পরিবহন সবকিছুই চলছে।সেখানে করোনাকে কিছু মনেই করা হচ্ছে না। অথচ আমাদের অযথা ভয় দেখিয়ে পরীক্ষাগুলো বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। এটা আমাদের প্রতি বৈষম্যমূলক আচরণ!নির্দিষ্ট সময়ে পড়াশোনা শেষ করে আমরা যাতে কর্মক্ষেত্রে না যেতে পারি এজন্য আমাদের পরীক্ষা নেওয়া হচ্ছে না। আমাদের দায়িত্ব আমরা নিব,আমাদের পরীক্ষা আগামী মাসের মধ্যেই গ্রহণ করা হোক!এছাড়াও তাঁরা শিক্ষামন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে বলেন,আপনি হয়তো জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের খোঁজই রাখেন না।তাই অকপটে বলেছেন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে কোনো সেশন জট নেই!মাস্টার্স ১৭-১৮ সেশনের শিক্ষার্থীদের মাস্টার্স শেষ হওয়ার কথা ১৮ সালে বা ১৯ সালের প্রথম দিকে।কিন্তু আজ ২১ সালেও তা শেষ হয়নি।এটা কি সেশন জট নয়?স্নাতক চতুর্থ বর্ষের পরীক্ষা হয়নি,তৃতীয় বর্ষের হয়নি,২য় বর্ষের হয়নি,প্রথম বর্ষের হয়নি এগুলো কি সেশন জট নয়? দাবি আদায়ে আমরাও বদ্ধপরিকর,দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত ঘরে ফিরছি না!

পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।