ভেড়ামারায় হাতুড়ি পেটা করে টাকা ছিনতাই!

প্রকাশিত: ৩:০৬ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৬, ২০২০

 

ভেড়ামারা প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা জুনিয়াদহ এলাকায় দিনে-দুপুরে লোহার রড, বাশের লাঠি ও হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে জুনিয়াদহ ইউনিয়নের মির্জাপুর গ্রামের আবুল কালাম এর পূত্র মোঃ রনি আহম্মেদ (১৭) ও মজিবর রহমান এর পূত্র মোঃ ইমন হোসেন (১৫) এর কাছ থেকে জুনিয়াদহ কৃষি ব্যাংকের লোন পরিশোধের ৭৮ হাজার টাকা ছিনতাই করার অভিযোগ উঠেছে।

রবিবার দুপুরে জুনিয়াদহ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের পেছনের হেয়ারিং রাস্তার উপরে এ ঘটনা ঘটে। থানায় অভিযোগকারী মোঃ মিরাদুল মন্ডল জানান, আমার ছোট ভাই বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক, জুনিয়াদহ শাখা হইতে ঋণ গ্রহণ করে। আমার ছোট ভাই মারা যাওয়ার পর সেই ঋণের টাকা পরিশোধ করার জন্য ব্যাংক হইতে নোটিশ প্রদান করে বিধায় আমার বড় ভাইয়ের ছেলে মোঃ রনি আহম্মেদ (১৭) ও আমার নাতী মোঃ ইমন হোসেন (১৫) দুজনে ৭৮ হাজার টাকা নিয়ে মোটর সাইকেল যোগে যায়।

পথিমধ্যে জুনিয়াদহ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের পেছনের হেয়ারিং রাস্তার উপরে একাকী পাইয়া (১) মোঃ রাব্বি হোসেন (১৮ বৎসর ৬মাস), পিতাঃ মোঃ নান্টু প্রামানিক, সং- হাটখুলাপাড়া, থানাঃ দৌলতপুর, (২) মোঃ নিলয় (২০), পিতাঃ মোঃ কুদ্দুস, (৩) মোঃ বুলবুল (১৯), পিতাঃ আবুল প্রামানিক, (৪) মোঃ রবিন হোসেন (২০), পিতাঃ আমজাদ, (৫) মোঃ শ্যামল (২০), পিতাঃ মোঃ শহিদুল, উভয় সাং- জুনিয়াদহ, পোষ্টঃ জুনিয়াদহ, থানাঃ ভেড়ামারা, জেলাঃ কুষ্টিয়াগণ সহ আরো ২/৩ জন মুখ বেঁধে আমার বড় ভাইয়ের ছেলে সহ নাতীর পথ আটকাইয়া মোটর সাইকেলের চাবি কেড়ে নেয় এবং আমার বড় ভাইয়ের ছেলের প্যান্টের ডান পকেটে থাকা উক্ত ৭৮ হাজার টাকা জোর পূর্বক কাড়িয়া নেয়। জোরা-জোরি করার সময় ছিনতাইকারীদের মুখ দেখে ফেলায় লোহার রড সহ বাঁশের লাঠি এবং হাতুড়ি দিয়া এলোপাতাড়িভাবে আঘাত করিয়া মারাত্বক জখম করে।

পরে তাদেরকে ভেড়ামারা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ভর্তি করা হয়েছে। বর্তমানে তারা চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছে। এই ব্যাপারে ভেড়ামারা থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

ভেড়ামারা থানার ওসি (তদন্ত) মোঃ জহুরুল ইসলাম বলেন, আজ দুপুরে এই ধরনের অভিযোগ হাতে পেয়েছি। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে।

পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।