পরিবার আর শুধু শাকিব খানের সঙ্গেই যোগাযোগ আছে বুবলীর

এনামুল হক রাসেল এনামুল হক রাসেল

,সম্পাদক, দ্য বিডি রিপোর্ট

প্রকাশিত: ৭:২৫ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৫, ২০২০

বিনোদন প্রতিবেদক: নায়িকা বুবলী আছেন, আবার নেইও। আছেন বলতে তাকে অনেকেই অনুভব করেন। তাকে নিয়ে আলোচনা করেন। তার হঠাৎ দৃশ্যপট থেকে আড়ালে চলে যাওয়া অনেককে কষ্ট দিচ্ছে। নেই বলতে তিনি শারীরিকভাবে কোথাও নেই। বুবলী নামটি কারো মুখে উচ্চারিত হলেও তাকে চোখের দেখতে পারছেন না।

 

 

এই নিয়েই রহস্য দানা বেধেছে। বুবলীর পরিবার থেকে কোনো তথ্য দেওয়া হয় না। বুবলী নিজেও কারো সঙ্গে যোগাযোগ রাখেন না। হয়তো তিনি চলচ্চিত্র ছেড়ে দিয়েছেন। তবে যোগাযোগ রেখেছেন শুধু শাকিব খানের সঙ্গে। শাকিব সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে বলেছেন, ‘বুবলীর সঙ্গে কেন কথা হবে না?

 

ফোনে কথা হয়। তিনি আমার সহশিল্পী। আমার সঙ্গে ১১টি ছবিতে নায়িকা হিসেবে অভিনয় করেছেন।’ কথা না বলার কী আছে!’ শাকিবের কথায় তাচ্ছিল্য আছে। এক সময় অপু বিশ্বাসও সকলের আড়ালে চলে গেলে শাকিব খান এভাবেই কথা বলতেন। বুবলীর বিষয়েও তার কথায় একই প্রতিধ্বনি পাওয়া যাচ্ছে। একমাত্র পরিবার ও শাকিব খানের সঙ্গে বুবলীর যোগাযোগ থাকলেও তার কোনো প্রযোজক, সহকর্মী বা গণমাধ্যমকর্মীর সঙ্গে যোগাযোগ নেই।

 

 

কিছুদিন আগে বুবলী সংশ্লিষ্ট একজন প্রযোজক বলেছেন, বুবলী আছেন যুক্তরাষ্ট্রে। তবে কবে ফিরবেন সেটা নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না। বুবলী নিজেও ক্যাসিনো ছবির পরিচালক সৈকত নাসিরকে যুক্তরাষ্ট্রে যাওয়ার কথাই বলেছেন। এই দুই জনের কথা থেকে ধরা যেতে পারে বুবলী যুক্তরাষ্ট্রে আছেন। কিন্তু এতোদিন সেখানে তিনি কি করছেন। সে বিষয়ে বুবলী কোথাও কোনো তথ্য দিচ্ছেন না। তাই গুজবও ডালপালা বিস্তার করে চলেছে।

 

 

একজন নির্মাতা বলেন, ‘বুবলীও অপুর ভাগ্যই বরণ করতে যাচ্ছেন।’ বুবলীর ফোনটি বাজে, কেউ রিসিভ করেন না। শাকিব খানও অন্য নায়িকার সঙ্গে কাজ করতে শুরু করেছেন। বুবলীর জন্য কারোই অপেক্ষা নেই। সবাই এখন তার প্রকাশ্যে আসা দেখার অপেক্ষায় রয়েছেন।

পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।