দৌলতপুরে ১৩ দিনেও ধরা পড়েনি স্কুলছাত্রী ধর্ষণ মামলার আসামী সুমন

এনামুল হক রাসেল এনামুল হক রাসেল

,সম্পাদক, দ্য বিডি রিপোর্ট

প্রকাশিত: ৯:০৫ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১৩, ২০২০

নিজস্ব প্রতিনিধি: কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে এক দশম শ্রেণীর ছাত্রীকে ধর্ষণের পর প্রকাশ্যেই ঘুরে বেড়াচ্ছে আসামী সুমন রেজা। মামলার দায়েরের ১৩ দিন পার হলেও পুলিশ তাকে গ্রেফতার করতে পারেনি। ওই ছাত্রীর দিন মজুর পিতা পুলিশসহ প্রভাবশালীদের দ্বারে দ্বারে ঘুরেও কোন ফল পাননি। তবে পুলিশ বলছে সুমন রেজাকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছেনা।

 

 

জানা যায়, দৌলতপুর উপজেলার হোগলবাড়ীয়া ইউনিয়নের জয়রামপুর গ্রামের দশম শ্রেণীতে পড়–য়া এক ছাত্রীর (১৬) সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে একই এলাকার সুমন রেজা। তিনি ওই গ্রামের রবিউল ইসলামের ছেলে। গত ১৮ সেপ্টেম্বর রাতে বাড়ির সবাই ঘুমিয়ে পড়লে সুমন রেজা ফোন করে ওই ছাত্রীকে বাড়ির বাইরে আসতে বলে। প্রেমিকের কথায় মেয়েটি বাড়ির পিছনে গেলে সুমন রেজা তাকে ধর্ষণ করে পালিয়ে যায়। মেয়েটি প্রথমে বিষয়টি গোপন রাখলেও ২৯ সেপ্টেম্বর তার মাকে জানায়। এ ঘটনায় মেয়েটির বাবা গত ৩০ সেপ্টেম্বর দৌলতপুর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে সুমন রেজার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। তবে মামলার পর ১৩ দিন চলে গেলেও পুলিশ আসামী সুমন রেজাকে গ্রেফতার করতে পারেনি।

 

 

মেয়েটির বাবা অভিযোগ করে বলেন, সুমন এলাকায় প্রকাশ্যেই ঘুরে বেড়াচ্ছে। কিন্তু পুলিশ তাকে ধরছে না। তিনি একজন দরিদ্র মানুষ, অন্যের ক্ষেতে দিন মজুরের কাজ করেন। এ কারণে পুলিশ তার কথা আমলে নিচ্ছেনা জানান ছাত্রীর বাবা। এলাকার একটি প্রভাবশালী মহল সুমনের পক্ষে কাজ করছে । এ ঘটনার সুষ্ঠ বিচার চান তিনি।

 

 

 

তবে দৌলতপুর থানার ওসি জহুরুল আলমের দাবি মামলা হওয়ার পর থেকে সুমন এলাকা ছাড়া। তাকে গ্রেফতারে একাধিক অভিযান চালানো হয়েছে। তবে তাকে এখনো গ্রেফতার সম্ভব হয়নি। খুব শিঘ্রী সে ধরা পড়বে বলে আশ্বাস দেন ওসি।

পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।