তুমি যে গিয়াছো বকুল বিছানো পথে- মো.শহিদুল্লাহ:

এনামুল হক রাসেল এনামুল হক রাসেল

সম্পাদক, দ্য বিডি রিপোর্ট ২৪ ডটকম

প্রকাশিত: ১২:১৪ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১২, ২০২০

(ব্যাচমেট আলহাজ্ব মো.আজিজুর রহমান চৌধুরী স্মরণে)

মো.শহিদুল্লাহ:

যখন পড়বে না মোর পায়ের চিহ্ন এই বাটে,

আমি বাইব না মোর খেয়াতরী এই ঘাটে,

চুকিয়ে দেব বেচা কেনা,

মিটিয়ে দেব গো, মিটিয়ে দেব লেনা দেনা,

বন্ধ হবে আনাগোনা এই হাটে–

তখন আমায় নাইবা মনে রাখলে,

তারার পানে চেয়ে চেয়ে নাইবা আমায় ডাকলে।” ,

-মৃত্যু মানে কেবলই একটা জীবনের ইতি, একটা শরীরে পরিসমাপ্তি-যা কখনই সম্পর্কের শেষ নয়। মৃত্যু এমনই যা জীবিত থাকাকালীন অনেক চেপে রাখা সত্যকে সামনে নিয়ে আসে। স্মৃতি চারণায় বিস্মৃতির সরণি বেয়ে হেঁটে আসে অনেক সুখ, দুঃখ, ভালোলাগা, অভিমান, উল্লাসের এক একটা মুহূর্ত। মৃত্যু এমনই যা মুখে কিছু না বলে চোখের জলে কথা বলিয়ে দেয়। চোখের জল আর কম্পমান ঠোঁট অনর্গল বলে দেয় মনের ভিতর চেপে থাকা এমন সব কথা যা, মানুষটি বেঁচে থাকাকালীন বলে ওঠা হয়নি। আবার এমনও হয় মানুষ কথা হারিয়ে ফেলে, খুঁজে পায় না সম্বিৎ। কখনও কখনও সমস্ত খারাপকে ভুলে গিয়ে কেবল মানুষটির ভালোলাগা, মানুষটিকে ভালোবাসার কারণ খুঁজতেও দেখা যায় স্মরণসভায়।

 

 

 

আজ কথাটা বলছি কারণ আজ বেলা ১২:৩০ ঘটিকার সময় ব্যাচমেট আমাদের ক্যাডেট ১৯৮১ ব্যাচের আলহাজ্ব আজিজুর রহমান চৌধুরী করোনায় আক্রান্ত হয়ে না ফেরার দেশে পাড়ি জমিয়েছেন( ইন্নালিল্লাহে অ ইন্না ইলাহি রাজিউন)

 

 

 

আজিজুর রহমান চৌধুরী বিপিএম ১৯৭৫ সালে মৌলভীবাজারের কানিহাটি বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি, ১৯৭৭ সালে সাতক্ষীরা সরকারি কলেজ থেকে এইচএসসি এবং পরবর্তীতে ফরিদপুর সরকারি রাজেন্দ্র কলেজ থেকে বিএসসি পাশ করেন৷ ১৯৮১ সালে বাংলাদেশ পুলিশ একাডেমি থেকে এক বছরের মৌলিক প্রশিক্ষণ শেষে তিনি সিএমপির বিভিন্ন ইউনিটের দু’বছরের বাস্তব প্রশিক্ষণ গ্রহণ শেষ করেন৷ তিনি বিসিএস পুলিশ ক্যাডারের সহকারী পুলিশ সুপার এবং পরে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হিসেবে পদোন্নতি লাভ করেন৷ চাকরি জীবনে তিনি সিএমপি, পড়ী’ং বাজার চট্টগ্রাম জেলা বিভিন্ন থানার অফিসার ইনচার্জ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন৷ তিনি জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশন টঘচজঋঙজ,টঘগওইঐ্টঘগওক তে দায়িত্ব পালন করে পুলিশ বিভাগ এবং দেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করেন৷ তিনি দীর্ঘদিন যাবত ঢাকার স্পেশাল ব্রাঞ্চে কর্মরত ছিলেন৷

 

 

 

 

ইংরেজ কবি জন ডান মৃত্যু নিয়ে একটি কবিতা লিখেছিলেন- ‘ডেথ, বি নট প্রাউড’। কবিতার শেষ দুটি চরণ ছিল- ‘একটা ছোট্ট ঘুমের পর যখন আমরা চিরকালের জন্য জাগবো/ মৃত্যু, তুমি তখন থাকবে না; তোমারই তখন মৃত্যু হবে।’

কৈশরে কবিতাটা আমাদের সবার মনেই বেশ দাগ কেটেছিলো জানি।

 

 

 

মৃত্যু শাশ্বত মৃত্যু চিরন্তন৷ মানব মনের চিরন্তন আকুতি “মরিতে চাহিনা আমি সুন্দর ভুবনে, মানবের মাঝে আমি বাঁচিবারে চাই; এই সূর্য করে এই পুষ্পিত কাননে, জীবন্ত হৃদয় মাঝে তাই যদি পাই৷

 

 

মৃত্যু অবধারিত মৃত্যু আসবেই-কিন্তু তারপরেও আমাদের ব্যাচমেট আলহাজ্ব আজিজুর রহমান চৌধুরী-এর করোনায় মৃত্যু ছিল অপ্রত্যাশিত অনাকাক্সিক্ষত৷ এই মৃত্যু মেনে নিতে আমাদের সবার হৃদয়েই রক্তক্ষরণ৷ কিন্তু বিধাতার অমোঘ সিদ্ধান্তের কাছে আমরা সবাই নতজানু৷ ‘অল্প শোকে কাতর,অধিক শোকে পাথর৷ এই গত সপ্তাহেই আমাদের আরেক ব্যাচমেট মো. আকবর আলী করোনায় আক্রান্ত হয়েছে ইহলোক ত্যাগ করেছেন৷ ব্যাচমেট আজিজ, আকবর যেখানেই থাকুন যেন শান্তিতে থাকেন৷ পরম করুণাময় আল্লাহ পাকের কাছে কায়মনোবাক্যে প্রার্থনা করব তিনি যেন তাদের বেহেশত নসিব করেন৷ তাদের পরিবারকে শোক সইবার সহ্যশক্তি যেন দেন৷

 

 

 

পৃথিবীর সব লেনাদেনা শেষ করে ব্যাচমেট আজিজ এমন জায়গায় চলে গেছে যেখান থেকে কেউ আর কোনদিন ফিরে আসে না৷ আজিজ চলে গেছে রেখে গেছে তার ভালো কাজের স্মৃতি৷ তার কথা যখনই মনে পড়বে তখনই হৃদয় বীণার তার শাশ্রু নেত্রে গেয়ে উঠবে “তুমি যে গিয়াছ বকুল বিছানো পথে৷”

 

 

লেখক: সাবেক পুলিশ কর্মকর্তা, লেখক ও কলামিস্ট।

পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।