জেলা জুড়েই জন সমাগম ঠেকাতে প্রশাসনের অভিযান

এনামুল হক রাসেল এনামুল হক রাসেল

,সম্পাদক, দ্য বিডি রিপোর্ট

প্রকাশিত: ৭:৩২ অপরাহ্ণ, মার্চ ২৫, ২০২০

স্টাফ রিপোর্টার: ঝিনাইদহ জেলা জুড়েই বিভিন্ন স্থানে জন সমাগম ঠেকাতে প্রশাসনের অভিযান চলছে, চায়ের দোকান বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। বুধবার সকাল থেকেই এ অভিযান পরিচালনা করা হয়। এদিকে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে শহরের প্রায় সব ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ দেখা গেছে।

এ সময় ঝিনাইদহ থানা পুলিশ চুয়াডাঙ্গা বাসস্ট্যান্ড, হামদহ আরাপপুর, চাকলাপাড়া,মডার্নমোড়, জেলা কেন্দ্রিয় বাস টার্মিনাল, পাগলাকানা ও কোর্ট এলাকায় অভিযান চালিয়ে কাজ না থাকা ব্যক্তিদের বাড়িতে চলে যাওয়ার নির্দেশ দেন ও চায়ের দোকানে বসে আড্ডা দেওয়া বেন্স টুল ভেঙ্গে দেন।

এ সময় তিনি অনেক দোকান ও অফিস বন্ধ করতে সকলকে অনুরোধ করেন। তিনি বলেন, বিশেষ প্রয়োজন ছাড়া কেউ বাইরে বের হবেন। করোনা প্রতিরোধে আমাদের সবাইকে সচেতন হতে হবে। ইতিমধ্যে কালীগঞ্জ উপজেলার সকল সাপ্তাহিক হাট বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত সকল হাট বন্ধ থাকবে। এছাড়াও শহরের দোকান ওষধ ফার্মেসি মুদি দোকান সহ অন্যান্য দোকান খোলা ছিল। তাছাড়া পরবর্তিতে মানুষের নিত্য প্রয়োজনীয় দোকানসহ কাঁচাবাজার, ওষুধ ও হাসপাতাল শুধুমাত্র খোলা রাখা যাবে।

কুষ্টিয়া : কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসক আসলাম হোসেন এর নির্দেশনায় বিপজ্জনক করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে গণজামায়েত নিষিদ্ধ করাসহ সরকারি নির্দেশ অমান্যকারীর বিরুদ্ধে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হয় এবং জেলার বিভিন্ন স্থানে টহল দেয়া হয়।

কুষ্টিয়া জেলায় ৬ টি উপজেলায় মোট ১২ টি মোবাইল কোর্ট অভিযান পরিচালিত হয়। দ্রব্যেমূল্য বৃদ্ধি ও মজুদ করায় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন , অত্যাবশকীয় পণ্য নিয়ন্ত্রণ আইন, সরকারী নির্দেশনা অমান্য করায় জেলার বিভিন্ন স্থানে সংক্রামক রোগ (প্রতিরোধ, নিয়ন্ত্রণ ও নির্মূল) আইনে মোট ৩৫ টি মামলায় ২লক্ষ ৮৩হাজার ০৫০ টাকা জরিমানা করা হয় এবং বেশ কয়েকজনকে মৌখিকভাবে সতর্ক করা হয়।

এছাড়া বিদেশ ফেরত ব্যাক্তিদের হোম কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিতকরণে প্রত্যেক ব্যাক্তির জন্য গ্রাম পুলিশ/আনসার নিয়োগ করা হয় এবং মোবাইল কোর্ট পরিচালনা কালে জন সাধারণের মাঝে করোনা ভাইরাস বিস্তার রোধে লিফলেট বিতরণ করা হয়। জন স্বার্থে মোবাইল কোর্টের এ অভিযান অব্যাহত থাকবে

খবরটি সর্ম্পকে পাঠকের মতামত: