কুষ্টিয়ায় বিবদমান দ্বন্দের জেরে বাড়ি-ঘরে আগুন দেয়ার অভিযোগ

এনামুল হক রাসেল এনামুল হক রাসেল

সম্পাদক, দ্য বিডি রিপোর্ট ২৪ ডটকম

প্রকাশিত: ৭:০৮ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১৪, ২০২১

নিজস্ব প্রতিনিধি: কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলার বাগুলাট ইউনিয়নের ভড়ুয়াপাড়া গ্রাামে দু’পক্ষের মধ্যে বিবদমান শত্রæতার জেরে বাড়ি-ঘরে আগুন লাগিয়ে ভস্মিভুত করা অভিযোগ দিয়েছে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার। শনিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে প্রতিপক্ষের দূর্বৃত্তরাই ঘরে আগুন লাগিয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে কুমারখালী থানা পুলিশ জানিয়েছে অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

 

 

স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শী ও ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার সূত্রে জানা যায়, গত গত ২৫ জানুয়ারী বাগুলাট ইউনিয়নের ভড়ুয়াপাড়া গ্রামের মৃত আলিমুদ্দিনের ছেলে আমিরুল ইসলাম ওরফে সবুরের লাশ সরিষা ক্ষেত থেকে উদ্ধার করে পুলিশ। এঘটনায় মৃত: সবুরের বড় ছেলে মাসুদ রানা বাদী হয়ে কুমারখালী থানায় হত্যার অভিযোগ এনে মামলা করেন।

 

 

প্রতিপক্ষ ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি সরোয়ার হোসেনের সমর্থক আগুনে ভস্মিভুত ক্ষতিগ্রস্ত বাড়ির মালিক প্রফেসর আমজাদ হোসেনের পরিবারের এক সদস্যের অভিযোগ, কুমারখালী থানায় মামলার পর থেকে স্থানীয় আধিপত্যকে কেন্দ্র করে চলে আসা দ্বন্দের জেরে প্রতিপক্ষ মৃত: সবুর গ্রæপের সমর্থক পিয়াস, সাহেদ, আলহাজ্ব, ইউনুস, মামুন, আতিয়ার জহুরুল ও মনিরুল সহ বেশ কয়েকজন বিভিন্নভাবে হয়রানি করছেন। গত দুইতিন দেনর মধ্যে প্রায় ১০ টি বাড়ির বিদ্যুতের মিটার ভেঙে সংযোগ বিচ্ছিন্ন করেছে এবং সর্বশেষ শনিবার রাতে বসতঘরে আগুন লাগিয়ে দিয়েছে। এতে প্রায় ৫ লাখ টাকার ক্ষতিসাধন হয়েছে বলে দাবি করেন এই ক্ষতিগ্রস্ত ব্যক্তি।

 

 

কুমারখালী উপজেলার ৭নং বাগুলাট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলাউদ্দিন খান বলেন, রাতের অন্ধকারে কে বা কারা আগুন দিয়ে এভাবে বাড়িঘর পুড়িয়ে দিয়েছে তা সঠিক ভাবে তদন্ত করলেই জানা যাবে। পুর্বশত্রæতার জের হোক আর যাই হোক এভাবে বাড়িঘরে আগুন লাগানো কোন ভাবে সমর্থনযোগ্য নয়। ঘটনার সংবাদ পেয়ে সেখানে আমার পরিষদের গ্রাম পুলিশ মোতায়েন করেছি। তাছাড়া ওসিসহ পুলিশ কর্মকর্তারা দেখে গেছেন; দেখা যাক উনারা কি করেন।

 

 

কুমারখালী থানার অফিসার ইনচার্জ মো. মজিবুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, সংবাদ পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। সেখানে আগুনে দুটি বসত ঘরসহ সবকিছু সম্পূর্ন ভস্মিভুত হয়েছে। তবে এঘটনায় এখনো পর্যন্ত কেউ কোন অভিযোগ নিয়ে আসেনি। অভিযোগ পেলে আগনগত ব্যবস্থা গ্রহনসহ জড়িতদের গ্রেফতার করা হবে।

পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।