কুষ্টিয়ায় এক সপ্তাহে নিহতের পরিচয় উদঘাটন, জড়িতদেরকে আটক ও আলামত উদ্ধার করেছে পুলিশ

এনামুল হক রাসেল এনামুল হক রাসেল

সম্পাদক, দ্য বিডি রিপোর্ট ২৪ ডটকম

প্রকাশিত: ১১:৩৩ পূর্বাহ্ণ, নভেম্বর ১৫, ২০২০

নিজস্ব প্রতিনিধি: কুষ্টিয়ায় এক সপ্তাহের ব্যবধানে নিহত নারীর পরিচয় উৎঘাটন, হত্যার আলামত উদ্ধার ও এর সাথে জড়িতদের গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ৫ নভেম্বর সকালে কুষ্টিয়া-রাজবাড়ী সড়কের পাশে কুমারখালী থানাধীন করাতকান্দি থেকে উদ্ধার হওয়া নিহত নারীর নাম রাধা রানী (৪৩)।

 

 

নীলফামারী জেলা সদরের সন্তোষ চন্দ্র রায়ের স্ত্রী সে। তাকে হত্যার দায়ে হানিফ মোল্লা, আব্দুর রশিদ ও আলামিন খলিফাকে আটক করেছে।

 

 

রবিবার দুপুরে কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে এক প্রেসবিফ্রিংয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গোলাম মোস্তফা এসব তথ্য জানান। তিনি বলেন, নারায়নগঞ্জে কাজ করার সুবাদে আব্দুর রশিদের সাথে পরিচয় হয় রাধা রানীর। অসুস্থ অবস্থায় চিকিৎসার জন্য রাধা রানীকে অক্সিজেন সংযোগসহ একটি এ্যাম্বুলেন্সের করে বরিশাল থেকে নীলফামারী যাওয়ার পথে রশিদ, আলামিন ও হানিফ মোল্লা মিলে রাধা রানীর অক্সিজেন খুলে মুখে কম্বল চাপা দিয়ে শ^াসরোধ করে হত্যা করে। পরে কুষ্টিয়া-রাজবাড়ী মহাসড়কে মৃতদেহ ফেলে রেখে পালিয়ে যায়। আসামী হত্যাকাণ্ডের দায় স্বীকার করে বিজ্ঞ আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করে।

 

কুষ্টিয়া জেলা গোয়েন্দা পুলিশ মাত্র ৭ দিনে তথ্যানুসন্ধান ও প্রযুক্তি ব্যবহার করে হত্যাকান্ডে জড়িত মূল আসামীদেরকে গ্রেফতার করে হত্যার রহস্য উদঘাটন করেছে। গ্রেফতারকৃত আব্দুর রশিদের বাড়ি গাজীপুরে। তাকে আশুলিয়া থেকে ও বরিশাল গৌর নদী থেকে আলামিন খলিফা এবং বরিশাল জেলার উজিরপুর উপজেলার বহরকাঠি গ্রাম থেকে চাঁন মোল্লার ছেলে হানিফ মোল্লাকে গ্রেফতার করা হয়।

পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।