জেএসসি ও এসএসসি পরীক্ষার ফলাফলের গড় মূল্যায়নে এইচএসসির ফলাফল নির্ধারণ

এনামুল হক রাসেল এনামুল হক রাসেল

সম্পাদক, দ্য বিডি রিপোর্ট ২৪ ডটকম

প্রকাশিত: ৪:২০ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ৭, ২০২০
এবার এইচএসসি পরীক্ষা হচ্ছেনা

দ্য বিডি রিপোর্ট ডেস্ক : করোনা ভাইরাসের কারণে চলতি বছরের এইচএসসি বা সমমানের পরীক্ষা হচ্ছেনা। জেএসসি বা সমমানের এবং এসএসসি পরীক্ষার ফলাফলের গড় মূল্যায়নের ওপর ভিত্তি করে এর ফলাফল নির্ধারণ করা হবে।

আজ বুধবার দুপুরে এইচএসসি বা সমমানের পরীক্ষা সংক্রান্ত বিষয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আয়োজিত জুম মিটিংয়ের শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি এ কথা বলেন।

 

এসময় শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী, মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মাহাবুব হোসেন,কারিগরি ও মাদরাসা বিভাগের সচিব আমিনুল ইসলাম খান, মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মু. জিয়ায়ুল হক সহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন।

 

বিশ্বের বিভিন্ন দেশের পরিস্থিতি দেখে সিদ্ধান্ত
শিক্ষামন্ত্রী জানান, এইচএসসি পরীক্ষা আয়োজনের বিষয়ে পরীক্ষার্থী, অভিভাবক, শিক্ষক ও সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে আলোচনা করেছি। তাদের কাছে আমরা অভিমত ও পরামর্শ নিয়েছি। পরীক্ষা সংক্রান্ত বিষয়ে বিশ্বের অনেক দেশের পরিস্থিতি দেখে আমরা ২০২০ সালের এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষা বাতিল করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। সরাসরি পরীক্ষা বাতিল করে পরীক্ষার্থীদের জেএসসি-জেডিসি ও এসএসসি-সমমান পরীক্ষার ফলের ওপর মূল্যায়ন করে গ্রেড নম্বর নির্ধারণ করা হবে।

 

গ্রেড পদ্ধতি কিভাবে হবে
শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘কী পদ্ধতিতে গ্রেড নির্ধারণ করা হবে, তার পরার্মশের জন্য সাধারণ বিশ্ববিদ্যালয়, বুয়েট, শিক্ষা বোর্ড ও বিশেজ্ঞদের সমন্বয়ে একটি টেকনিক্যাল কমিটি গঠন করা হবে। তাদের আগামী নভেম্বরের প্রথম সপ্তাহে প্রতিবেদন দিতে বলা হবে। তার ভিত্তিতে ডিসেম্বরে এইচএসসি-সমমান পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হবে।’

 

 

যারা পুনরায় পরীক্ষা দিতে চেয়েছিল
অনেকে এক, দুই বিষয়ে বা পুরো ফল আশানুরূপ না হওয়ায় পুনঃপরীক্ষা দেওয়ার প্রস্তুতি নিয়েছিল, তাদের ক্ষেত্রে কিভাবে মূল্যায়ন করা হবে—এমন প্রশ্নের উত্তরে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘সব শিক্ষার্থীর ক্ষেত্রে একইভাবে মূল্যায়ন করে তাদের গ্রেড নম্বর দেওয়া হবে। তবে, কমিটির সুপারিশের ভিত্তিতে এই বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।’

 

জেএসসি ও এসএসসির ফল খারাপ হলে
জেএসসি ও এসএসসি পরীক্ষার ফল খারাপ হলেও এইচএসসি পরীক্ষায় অনেকে ভালো প্রস্ততি নিয়েছিল, তাদের ক্ষেত্রে কী হবে—এমন প্রশ্নের জবাবে দীপু মনি বলেন, ‘কী করার ছিল, কী ছিলো না, তা ভেবে লাভ নেই। সারাবিশ্বে এখন বেঁচে থাকার লড়াই চলছে, এরমধ্যে পরীক্ষা নিয়ে আমরা কাউকে ঝুঁকির মধ্যে ফেলতে চাই না। এসব বিষয় বিবেচনা করে আমরা আগের ফলের ভিত্তিতে এইচএসসি-সমমান পরীক্ষার্থীদের ফল প্রকাশের সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

 

উল্লেখ্য, করোনা ভাইরাসের কারণে গত ১৭ মার্চ থেকে দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। চলতি বছরের এইচএসসি বা সমমানের পরীক্ষা স্থগিত করা হয়। এবার মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ১৩ লাখ ৬৫ হাজার ৭৮৯ জন।

পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।